এ বছর কোরবানির চামড়ার ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করতে সব করা হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী – newsline71bd
শিরোনাম
এক ব্যাগ রক্তদানে বাঁচবে একটি প্রাণ দশে মিলি প্রাণ, রক্ত করি দান ‘ইরফান কাউন্সিলর পদ থেকে আজই বরখাস্ত’ আলোচিত রিফাত হত্যা মামলার অপ্রাপ্তবয়স্ক ১১ জনের সাজা!! ২ দিন ছুটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চূড়ান্ত হচ্ছে বরগুনার আলোচিত রিফাত হত্যা অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ আসামির রায় আজ রামগঞ্জ পৌরসভাব্যাপী ৩শ গভীর নলকূপ স্থাপনের কাজ উদ্বোধন করেন পৌর মেয়র!! স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে আজ দেশে ফিরেছেন রাষ্ট্রপতি!! নাটোরের সিংড়ায় পুজা মন্ডপ পরিদর্শনে প্রতিমন্ত্রী পলক ও ডিআইজি দুর্নীতির বিরুদ্ধে রিপোর্ট সরকারকে ব্যবস্থা নিতে সহায়তা করে: প্রধানমন্ত্রী সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে মাস্ক ছাড়া কোনো সার্ভিস নয়ঃ মন্ত্রিপরিষদ সচিব!!
মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৫:১৯ অপরাহ্ন
add

এ বছর কোরবানির চামড়ার ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করতে সব করা হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী

রিপোটারের নাম / ৪১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৭ জুলাই, ২০২০
add

গত বছর কোরবানির পশুর চামড়া ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা রাস্তায় ফেলে গিয়েছিলেন। ক্ষতি হয়েছিল কোটি কোটি টাকা। নষ্ট হয়েছিল প্রচুর চামড়া। এ বছর কাঁচা চামড়া রপ্তানির বিষয়ে ভাবছে সরকার। কয়েকদিনের মধ্যেই ট্যানারি মালিকদের সঙ্গে আলোচনা করে কাঁচা চামড়ার দাম আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

আজ বৃহস্পতিবার (১৭ জুলাই) অনলাইনে ২০২০-২১ অর্থবছরের রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা ঘোষণা উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, এ বছর কোরবানির চামড়ার উপযুক্ত মূল্য নিশ্চিত করার জন্য সরকার সবকিছু করবে। বিগত দিনের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। চামড়া সংগ্রহের জন্য এবার কোনও অর্থ সংকট থাকবে না। গত বছরের মতো পরিস্থিতি কোনও অবস্থাতেই হতে দেয়া যাবে না।

রপ্তানি আয় প্রসঙ্গে টিপু মুনশি বলেন, কোভিড-19 এর নেতিবাচক প্রভাবের ফলে গত মার্চ, এপ্রিল এবং মে মাসে পণ্য খাতের রপ্তানি আয় কমেছে, তবে জুন মাস থেকে বাড়তে শুরু করেছে। সঠিক নীতি অনুসরণ এবং সময়মতো তা বাস্তবায়ন নিশ্চিত করা গেলে রপ্তানি বাড়ানো সম্ভব হবে।

তিনি আরও বলেন, চলতি অর্থ বছরের ৬ মাস পর বিশ্ব অর্থনীতি এবং আমাদের রপ্তানির গতিচিত্র পর্যালোচনা ও বিশ্লেষণ করে ৪৮ বিলিয়ন ডলারের রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা পুননির্ধারণ করা হয়েছে। সবার আন্তরিক প্রচেষ্টা থাকলে এই লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা সম্ভব।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, গত ২০১৯-২০ অর্থবছর ৫৪ বিলিয়ন ডলার রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে আয় হয়েছে ৪০ দশমিক শূন্য ৬ বিলিয়ন ডলার। তাই লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের কথা বিবেচনা করে চলতি অর্থবছরে ৪৮ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে পণ্য খাতে রপ্তানির টার্গেট ৪১ বিলিয়ন ডলার এবং সার্ভিস সেক্টরে ৭ বিলিয়ন ডলার নির্ধারণ করা হয়েছে।

বাণিজ্যসচিব ড. মো. জাফর উদ্দিনের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি খাত উন্নয়ন বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, সংসদ সদস্য শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, এফবিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহিম, বিজিএমইর প্রেসিডেন্ট ড. রুবানা হক, এফবিসিসিআইয়ের ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. সিদ্দিকুর রহমান, বেসিসের সভাপতি আলমাস কবীর, চামড়াজাত পণ্য রপ্তানিকারক সমিতির প্রেসিডেন্ট মো. সাইফুল ইসলাম এবং বিকেএমইর প্রথম সহ-সভাপতি মো. হাতেম প্রমুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বিশ্বে করোনা ভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
৪০০,২৫১
সুস্থ
৩১৬,৬০০
মৃত্যু
৫,৮১৮
সূত্র: আইইডিসিআর

বিশ্বে

আক্রান্ত
৪৩,৪৭৭,০০৫
সুস্থ
২৯,১৯২,৭৩৯
মৃত্যু
১,১৫৯,৩১৯
add