রাজধানীতে ক্যান্সারের ভেজাল ওষুধ কারখানা, যাচ্ছে বিদেশেও – newsline71bd
শিরোনাম
রামগঞ্জে নিজস্ব অর্থায়নে এমপি আনোয়ার খানের কম্বল ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ… রামগঞ্জে নৌকার বিজয়ে আওয়ামীলীগ ঐব্যবদ্ধ!! ড. আনোয়ার হোসেন খান এমপি… প্রতারকের খপ্পরে পড়ে রিক্সা খোঁয়ানো দুলাল মিয়াকে নতুন অটোরিক্সা প্রদান।। নাটোরের সিংড়ায় চৌগ্রাম ইউনিয়নে হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান,ঐক্য পরিষদ গঠন। নাটোরে বড়হরিশপুর ইউনিয়নে ছাত্রলীগ নেতার উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতারণ… রামগঞ্জে নবাগত শিক্ষকদের বরন করে নিলেন সহকারী প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি।। রামগঞ্জে গৃহবধু নির্যাতনের বিচার চাইতে এসে হামলার শিকার ৩মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান।। ওসির সাথে রামগঞ্জ প্রেসক্লাবের সদস্যদের মতবিনিময়!! অসম্ভবকে সম্ভব করে বাংলাদেশ আজ বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছে আমরাও পারিঃ সেতুমন্ত্রী!! পদ্মার বুকে স্বপ্নের পুরো সেতু দৃশ্যমান!!
শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১, ০৩:১৪ পূর্বাহ্ন

রাজধানীতে ক্যান্সারের ভেজাল ওষুধ কারখানা, যাচ্ছে বিদেশেও

রিপোটারের নাম / ৬৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৫ জুলাই, ২০২০

রাজধানীতে দেদারসে তৈরি হচ্ছে নকল ও ভেজাল ওষুধ। এই মুহূর্তে প্রশাসনের সব নজরদারি যেহেতু করোনা কেন্দ্রিক, তাই এই সুযোগটাই কাজে লাগাচ্ছে প্রতারক চক্র। এন্টিবায়োটিক তো বটেই ক্যান্সারের মতো জটিল রোগের ভেজাল এসব ওষুধ দেশের পাশাপাশি চোরাই পথে রপ্তানি হচ্ছে বিদেশেও।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এগুলো মানবদেহের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকারক।

চলছে ওষুধ প্যাকেজিংয়ের কাজ। শুধু এই কাজ করার বেতন ১৫ হাজার টাকা। রাজধানীর হুমায়ুন রোডের বাসারটির দু’টি ফ্লোর ভাড়া নিয়ে এ কাজ চলতো দিনের পর দিন। আবাসিক এলাকা তাই সন্দেহের সুযোগ কম।

দেশের নামিদামি বেশ কয়েকটি কোম্পানির ওষুধ নকল করে সেগুলো দেশের বাজারেতো বটেই, মোবাইল যন্ত্রাংশের আড়ালে পাঠিয়ে দেওয়া হতো ভারত ও চীনে। মাত্র ৩০টি ট্যাবলেটের এই এক ফাইল ওষুধের দাম ১৫ হাজার টাকা।

আরো পড়ুনঃ ব্যথার ওষুধের উপাদান ‘টাপেন্টাডল’কে মাদক ঘোষণা

যে জায়গায় বসে ওষুধ বানানো হতো তার পাশের ঘরে পাওয়া গেল গাঁজা ও ইয়াবা সেবনের সরঞ্জাম। কোম্পানির নাম কে এম ট্রেডার্স। মালিক মামুনের দাবি, তাকে এই ওষুধগুলো সরবরাহ করতো মাসুদ রানা নামে একজন। কিন্তু এসব তৈরি হতো কোথায় তা জানা নেই তার।

গোয়েন্দা পুলিশ বলছে, মাসুদকে ধরতে মাঠে নেমেছেন তারা।

ডিএমপি ডিবি অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মো রফিকুল ইসলাম বলেন, মাসুদ রানা চক্রের আরো কিছু লোক আছে, তদন্ত চলছে।

রাজধানীর মিটফোর্ড ও বাবুবাজার এলাকার ওষুধের দোকানগুলোতে পাইকারি দরে মিলছে নকল ওষুধ। নামিদামি কোম্পানির একটা অ্যান্টিবায়োটিকের দাম যেখানে ১০ টাকা, সেখানে একই নামের কিংবা কিছুটা ভিন্ন নামে ওষুধ মিলছে নামমাত্র দামে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এসব ওষুধ দেহের জন্য মারত্মক ক্ষতিকর। তার মতে, করোনার এই দুর্যোগে এসব নকলবাজরা যাতে আড়ালে থেকে না যায় সে জন্য সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

আরো পড়ুনঃ রাজধানীতে ভেজাল যৌন উত্তেজক ওষুধ ও প্রসাধনী!

ওষুধ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক মুনির উদ্দিন বলেন, যেহেতু দৃষ্টি চলে গেছে করোনার দিকে তাই দুস্কৃতিকারীরা সুযোগ পেয়ে গেছে।

ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের দাবি, সাধ্যমতো কাজ করছেন তারা।

ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের উপপরিচালক আইয়ুব হোসেন বলেন, আমাদের নজরে যেগুলো আসছে এবং গোয়েন্দারা যেগুলো ধরছে সেগুলোর বিষয়ে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।

বিশ্ববাজারে বাংলাদেশের ওষুধের কদর রয়েছে। বিশ্বের প্রায় দেড়শ দেশে রপ্তানি হয় বাংলাদেশের ওষুধ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বিশ্বে করোনা ভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
৫৩০,২৭১
সুস্থ
৪৭৫,০৭৪
মৃত্যু
৭,৯৬৬
সূত্র: আইইডিসিআর

বিশ্বে

আক্রান্ত
৯৬,১১৮,০০৯
সুস্থ
৫২,৭০৯,৫২৭
মৃত্যু
২,০৫৬,২৩১