মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৪৩ অপরাহ্ন
add

…স্তব্ধ পৃথিবীর স্বস্তির এখন একটাই ভাষা ক্রীড়াঙ্গণ…

রিপোটারের নাম / ৫৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই, ২০২০
add

স্পোর্টিং ডেস্ক নিউজ লাইন 71 বিডি

অবরুদ্ধ দুনিয়া, বন্দি জীবন। স্তব্ধ পৃথিবীর’ স্বস্তির এখন একটাই ভাষা, ক্রীড়াঙ্গণ। ডাক্তাররা যখন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এগিয়ে এসেছে মানব সেবায়। যখন বিজ্ঞানীররা বুদ করোনার প্রতিষেধক আবিষ্কারের নেশায়, তখন রঙহীন পৃথিবীতে একছটা প্রাণের সঞ্চার ক্রীড়াঙ্গণের হাত ধরে। শুরুটা ফুটবল দিয়ে, এরপর একে এক কাফেলায় শামিল হয়েছে গলফ, বেসবল, ফর্মুলা ওয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ। সবশেষ ইংল্যান্ড-উইন্ডিজ সিরিজ দিয়ে ২২ গজে, ফিরেছে ক্রিকেট। ফলে প্রাণের সঞ্চার ফিরেছে হাপিয়ে ওঠা সমর্থকদের মাঝে।

লিভারপুলের সাবেক স্কটিশ রাইট হাফ, বিল শাঙ্কলি একবার মজা করেই বলেছিলেন, কিছু মানুষ ভাবেন ফুটবল জীবন মৃত্যুর ব্যাপার। কিন্তু আমি নিশ্চিত করে বলছি এটা এর চেয়েও জরুরি কিছু। প্রায় অর্ধ শতাব্দি আগে তার করা এমন উক্তি যে পৃথিবীবাসীর জীবনের সঙ্গে এমনভাবে মিলে যাবে সেটা হয়তো ভাবেনি কেউই।

তখন দুনিয়া জুড়ে চলছে করোনার তাণ্ডব। লকডাউনের বন্দি জীবনে অতিষ্ঠ সব বয়সী মানুষ। সেই বধ্যভূমিতেই’ হটস্পট ইউরোপে ফুটবল ফেরানোর ঘোষণা জার্মানদের।

তারিখটা ৬ মে। যেদিন ডর্টমুন্ড-শালকে কোন নির্দিষ্ট সমর্থকের নয় বরং হয়ে উঠে ছিলো গোটা পৃথিবীবাসীর ক্লাব। লকডাউনের মধ্যেও চায়ের পেয়ালায় চুমু দিতে দিতে সবাই বুদ হয়েছিলো বুন্দেসলিগায়।

করোনার বিষবাষ্প হয়তো থামিয়েছে অনেক কিছুই, তবে থামাতে পারেনি ক্রীড়াঙ্গণকে। স্বাস্থ্যবিধি মেনেই চলেছে রেসলিং WWE স্ম্যাকডাউন। যেখানে নিয়মিতই, মঞ্চে পারফর্ম করেছেন রোমান, বিগ শো, জন সিনা’রা। দর্শকদের দিয়েছেন আনন্দের খোরাক।

তাইওয়ানের মধ্য দিয়ে লকডাউনের দুনিয়ায় যাত্রা শুরু বেসবল চ্যাম্পিয়নশিপের। এরপর একে একে জাপান, কম্বোডিয়া, ভিয়েতনামেরও ফিরেছে খেলাটি। মাঠে দর্শক না থাকলেও ঠিকই ছিল দর্শকদের অবয়ব।

গলফ ভক্তদের হতাশার সমাপ্তির দাড়ি টেনে, দীর্ঘ তিন মাস বন্ধ থাকার পর, পিজিএ ইউরোপিয়ান ট্যুর দিয়ে জুনের শেষে মাঠে ফিরেছে খেলাটি। এবার অপেক্ষা এশিয়ান ট্যুরের তারিখ ঘোষণার।

এ মৌসুমের ফর্মুলা ওয়ানের সমাপ্তি দেখে ফেলেছিলেন আনেকই। তবে সব শঙ্কা উড়িয়ে দিয়ে অস্ট্রিয়ান গাঁ প্রির প্রথম ধাপ শেষ হয়েছে। দ্বিতীয় ধাপের লড়াই ১২ই জুলাই।

বাকি ছিলো ক্রিকেট। তারও নবজন্ম হলো সাউদাম্পাটনে। বৃষ্টির রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করে ঘুঁচলো ১১৭ দিনের বন্ধ্যাত্ব। সব মিলিয়ে বলাই যায়, অবরুদ্ধ দুনিয়ার আলোকবর্তিকা উঁচিয়ে ধরেছে, ক্রীড়াঙ্গণ। তবে এখনও যে বাকি অনেক পথ, যেতে হবে বহুদূর।

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
add

বিশ্বে করোনা ভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
৩৯১,৫৮৬
সুস্থ
৩০৭,১৪১
মৃত্যু
৫,৬৯৯
সূত্র: আইইডিসিআর

বিশ্বে

আক্রান্ত
৪০,৩৮৮,৮০২
সুস্থ
২৭,৬৯১,৯৬৫
মৃত্যু
১,১১৮,০৮৩
add